যুবলীগের মধ্যে কোনো গ্রুপিং চলবে না, ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। যারা গ্রুপিং করবেন, ঐক্য বিনষ্ট করবেন তাদের যুবলীগ করার অধিকার নেই। কোনো ভাইয়ের বা ব্যক্তির নির্দেশে নয়, যুবলীগ চলবে শেখ হাসিনার নির্দেশে।

আজ শনিবার (২রা জানুয়ারি) বিকেলে নগরের কাজীর দেউড়ির আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে নগর যুবলীগ আয়োজিত সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে রেজাউল করিমকে নৌকা প্রতীক দেওয়া হয়েছে। যদি কোনো কারণে নৌকা প্রতীক পরাজিত হয়, তাহলে ধরে নেবো এই অঞ্চলের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ শেখ হাসিনার কর্মী নয়। আপনারা নিজকে এবং পোস্টকে ভালোবাসেন। শেখ হাসিনাকে ভালোবাসেন না।
তিনি বলেন, দেশে নতুন ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। তারেক জিয়া লন্ডনে বসে দেশে অর্থ বিনোয়োগ করছেন। তাই নিজেদের মধ্যে কোন্দল সৃষ্টি না করে ঐক্য গড়ে তুলুন। সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করলে বিএনপি জামায়াত আগামী সিটি নির্বাচনে জয় লাভ করতে পারবে না। তিনি আরও বলেন, আল্লামা শফিকে কি প্রক্রিয়ায় এই পৃথিবী থেকে বিদায় করা হলো নিশ্চয় তা অজানা নয়। বাবুনগরী, মামুনুল হকের গ্রুপরা সেদিন শাপলা চত্বরে অবস্থান নিয়ে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চেয়েছিলেন। তারা নতুন করে বিএনপি-জামায়াত থেকে অর্থ নিয়ে আবার রাষ্ট্র বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন।
নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চুর সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় আরও বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শাহাদাত হোসেন তসলিম, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম বদি প্রমুখ।