মুন্সিগঞ্জ সদরের মিরকাদিম পৌরসভার মেয়র হাজী আব্দুস সালামের বাসায় বিস্ফোরণে পৌর মেয়রের স্ত্রী ও চারজন কাউন্সিলরসহ অন্তত ১৩ জন দগ্ধ হয়েছেন। তাদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিস্ফোরণে দগ্ধ ১২ জনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল)রাত সাড়ে ৮ টার দিকে পৌরসভার রামগোপালপুর এলাকার বাসভবনে ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আহত চার কাউন্সিলর হলেন মো. সোহেল, মো. আওলাদ, দীন ইসলাম ও রহিম বাদশা। আহত অন্যরা হলেন মেয়রের স্ত্রী কানন বেগম, মো. মোশারফ, মনির হোসেন, শ্যামল দাস, পান্না, কালু, মো. ইদ্রিস আলী, মঈনউদ্দিন ও মো. তাজুল।

খবর পেয়ে সিআইডি, পিবিআই, জেলা গোয়েন্দা সংস্থা ডিবি ও জেলা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তারা ক্ষতিয়ে দেখছে কি কারণে বা কি বিস্ফোরিত হয়েছে।

মিরকাদিম পৌরসভার কাউন্সিলর রহিম বাদশা বলেন, ‌পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র নিয়ে মেয়রের বাসার তৃতীয়তলার একটি কক্ষে আলোচনা করছিলাম আমরা। হঠাৎ করেই বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। মুহূর্তে কক্ষের ভেতর আগুনের শিখা দেখা যায়। বিস্ফোরণে কক্ষের আসবাবপত্র, জানালার কাচ ফেটে চুরমার হয়ে গেছে।

বিস্ফোরণের শব্দ পেয়ে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। তাদের মধ্যে মেয়রের স্ত্রী কাননের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক বলেন, ‌কেন এই বিস্ফোরণ ঘটেছে তা এখনও বলা যাচ্ছে না। পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে বিস্তারিত পরে বলা যাবে।

Leave a Reply